স্নায়ুতন্ত্র : মাস্তিষ্ক ও সুষুম্নাকান্ড

স্নায়ুতন্ত্র : মাস্তিষ্ক ও সুষুম্নাকান্ড ( মাধ্যমিক জীবন বিজ্ঞান প্রথম অধ্যায়)|Madhyamik Life science

প্রশ্নঃ কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের প্রধান অংশ গুলি কি কি ?

উত্তর : কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের প্রধান অংশ দুটি -১) মস্তিষ্ক ২) সুষুম্নাকান্ড ।

প্রশ্ন : মস্তিষ্কের প্রধান অংশগুলির নাম, অবস্থান ও কাজ লেখো।

উত্তর : মস্তিষ্কের প্রধান অংশ :

১) গুরুমস্তিষ্ক (Crebral Cortex) : বাম গোলার্ধ ও ডান গোলার্ধে বিভক্ত। গোলার্ধদ্বয় করপাস ক্যালোসাম নামক স্নায়ুযোজক দিয়ে যুক্ত থাকে । গুরুমস্তিষ্ক অসংখ্য ভাঁজ (জাইরাস) ও খাঁজ (সালকাস) নিয়ে গঠিত । অগ্র মস্তিষ্কের সর্ববৃহৎ অংশ

অবস্থান : অগ্রমস্তিস্কে অবস্থিত এবং করোটির বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে অবস্থিত ।

কাজঃ a) প্রাণীদের চিন্তা, স্মৃতি, বুদ্ধি ইত্যাদি মানসিক বোধ নিয়ন্ত্রণ । b) চাপ, তাপ, ব্যথা, শ্রবণ, দর্শন ইত্যাদি স্পর্শ বোধ নিযন্ত্রণ করে।

২) থ্যালামাস : গুরুমস্তিষ্কের প্রধান সিংহদ্বার বলে।

অবস্থান: অগ্রমস্তিষ্কের অংশ, যা গুরুমস্তিষ্কের নীচে অবস্থিত ।

কাজঃ a) পুরুত্বপূর্ণ প্রতিবর্তী কেন্দ্র। b) ক্রোধ, পীড়ন প্রভৃতি আবেগজনিত প্রতিক্রিয়া গুলি এখানে ঘটে ।

৩) হাইপোথ্যালামাস: এটি শ্বেত ও ধূসর পদার্থের সমন্বয়ে গঠিত।

অবস্থান: অগ্রমস্তিষ্কের অংশ, যা থ্যালামাসের নীচে অবস্থিত ।

কাজঃ ১) সমবেদী ও পরাসমবেদী উভয় প্রকার স্নায়ুতন্ত্রকে নিয়ন্ত্রণ করে । ২) ক্ষুধা, তৃষ্ণা, হাসি, কান্না, উত্তেজনা, উদ্বেগ প্রভৃতি মানসিক আবেগ নিয়ন্ত্রণ করে।

৪) মধ্য মস্তিষ্ক : টেকটাম ও সেরিব্রাল পেডাঙ্কল নিয়ে গঠিত।

অবস্থান: অগ্র মস্তিষ্ক ও পশ্চাদ্ মস্তিষ্কের মাঝখানে অবস্থিত ।

কাজ : a) দর্শন ও শ্রবণ নিয়ন্ত্রণ করে। b) আলোক প্রতিবর্ত নিয়ন্ত্রণ করে ।

৫) পনস্ বা যোজকঃ লঘুমস্তিষ্ক ও সুষুম্নাশীর্ষকের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে।

অবস্থানঃ মধ্য মস্তিষ্কের নীচে ও সুষুম্নাশীর্ষকের ওপরে থাকে।

কাজঃ শ্বাস ক্রিয়ার হার নিয়ন্ত্রণ করে।

৬ ) লঘু মস্তিষ্কঃ দুটি গোলার্ধে বিভক্ত গোলার্ধ দুটি ভারমিস নামক স্নায়ুযোজক দিয়ে যুক্ত থাকে ।

অবস্থানঃ পনস্ ও সুষুম্না শীর্ষকের সংযোগস্থলে করোটির পশ্চাদভাগে থাকে ।

কাজঃ দেহের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ করে।

৭) সুষুম্নাশীর্ষক ( Medala oblongata) : পশ্চাদ্ মস্তিষ্কের অংশ।

অবস্থানঃ পনস্ ও সুষুম্নাকান্ডের মাঝে ।

কাজঃ বমন, শ্বাস ক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ ।

স্নায়ুতন্ত্র : মাস্তিষ্ক ও সুষুম্নাকান্ড ( মাধ্যমিক জীবন বিজ্ঞান প্রথম অধ্যায়) জীবজগতে নিয়ন্ত্রণ ও সমন্বয়

প্রশ্নঃ মেনিনজেস ও সেরিব্রোস্পাইনাল ফ্লুইড কী?

উত্তরঃ মেনিনজেস : কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের ত্রিস্তরীয় আবরণকে মেনিনজেস বলে ৷

অবস্থানঃ মস্তিষ্ক ও সুষুম্নাকান্ডকে বেষ্টন করে অবস্থিত।

কাজঃ মস্তিষ্ক ও সুষুম্নাকান্ডকে বাহ্যিক আঘাত থেকে রক্ষা করে।

CSF : কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের গহ্বরে যে স্বচ্ছ বর্ণহীন পরিবর্তিত কলারস থাকে তাকে CSF বলে।

অবস্থানঃ মস্তিষ্ক প্রকোষ্ঠ ও সুষুম্নাকান্ডের গহ্বরে CSF অবস্থিত ।

কাজঃ কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকে সুরক্ষা প্রদান স্নায়ু কোশকে পুষ্টিদ্রব্য ও অক্সিজেন সরবরাহ করে ৷

প্রশ্নঃ ভেন্ট্রিকল ও ফাইলাম টারমিনেল কাকে বলে?

উত্তর : মস্তিষ্কের মধ্যে যে প্রকোষ্ঠ গুলি থাকে, তাদের নিলয় বা ভেন্ট্রিকল বলে।

সুষুম্নাকান্ডের শেষপ্রান্ত সরু চুলের মতো অংশ দেখা যায়, একে ফাইলাম টারমিনেল বলে।

প্রশ্নঃ ফোরামেন অব ম্যাগনাম কাকে বলে?

উত্তরঃ করোটির অঙ্কদেশে অবস্থিত যে ছিদ্র দিয়ে সুষুম্নাকান্ড নির্গত হয় তাকে ফোরামেন অব ম্যাগনাম বলে ।

প্রশ্নঃ সুষুম্নাকান্ডের কাজ কি কি ?

উত্তরঃ প্রতিবর্ত ক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে স্বয়ংক্রিয় স্নায়ুতন্ত্রের (ANS) কেন্দ্র হিসাবে কাজ করে।

প্রশ্নঃ ধূসর বস্তু ও শ্বেত বস্তুর পার্থক্য লেখো

উত্তরঃ ধূসর বস্তুঃ মায়েলিন আবরণ : অনুপস্থিত । রঞ্জক: মেলানিন থাকে। কাজ : স্নায়ুকেন্দ্র গঠন করে।

শ্বেতবস্তুঃ মায়েলিন আবরণ : থাকে । রঞ্জক: মেলানিন থাকে না। কাজ : স্নায়ুপথ গঠন করে।

প্রশ্নঃ গুরুমস্তিষ্কের প্রধান খন্ডগুলি কী কী? এদের কাজ লেখো

উত্তরঃ ১) ফ্রন্টাল লবঃ চিন্তা ও বুদ্ধি নিয়ন্ত্রণ । ২) প্যারাইটাল লব : স্পর্শ, ব্যথা ও তাপ নিয়ন্ত্রন। ৩) টেম্পোরাল লবঃ শ্রবণ নিয়ন্ত্রণ।৪) অক্সিপিটাল লবঃ দর্শন নিয়ন্ত্রণ। ৫) লিম্বিক লবঃ আচরণ নিয়ন্ত্রণ।