বর্জ্য ব্যবস্থাপনার 3R পদ্ধতি : মাধ্যমিক ভূগোল

বর্জ্য ব্যবস্থাপনার 3R পদ্ধতি : Madhyamik Geography

বর্জ্য পদার্থগুলিকে শুধু অপসারণ বা স্থানান্তরণের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ না করে প্রয়োজন মতো ওগুলির পরিমাণ হ্রাস, পুনর্ব্যবহার এবং পুনর্নবীকরণের মাধ্যমে অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে বর্জ্য পদার্থ
নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা গড়ে তোলা যায় |আর এটাই হল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা |

বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মূল ভিত্তি হল তিনটি R (3R) যথা Reduce বা পরিমাণ হ্রাস, Reuse বা পুনর্ব্যবহার এবং Recycle বা পুনর্নবীকরণ |

পরিমাণ হ্রাস (Reduce): বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মূল লক্ষ্যই হল কম আবর্জনা উৎপাদন করা। এই লক্ষ্যে জিনিসপত্রের অপচয় বন্ধ করে, জীবনযাত্রার পদ্ধতিগত পরিবর্তন ঘটিয়ে কম বর্জ্য সৃষ্টি করতে হবে।

পুনর্ব্যবহার (Reuse): নতুন পদ্ধতি উদ্ভাবন করে পরিত্যক্ত দ্রব্য পুনরায় ব্যবহারের ব্যবস্থা করতে হবে |

যেমন— বাতিল জলের বোতল থেকে ঘর সাজানোর নানা দ্রব্য প্রস্তুত করা যায় বা পুরোনো জলের বোতলের সাহায্যে বাগানে জল দেওয়া প্রভৃতি কাজ করা যায়।

পুনর্নবীকরণ (Recycle): এই পদ্ধতিতে বর্জ্য পদার্থ পরিশোধন ও প্রক্রিয়াকরণ করে পুনরায় ব্যবহারের উপযোগী স্তুতে পরিণত করা হয়। যেমন—জৈব আবর্জনাকে জৈব সারে পরিণত করে বাড়ির বাগানে ব্যবহার করা যায় বা পুরোনো খবরের কাগজ থেকে কাগজের মণ্ড তৈরি হয় বা ঠোঙা তৈরি করা যায়। এ ছাড়া উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারও বর্জ্য ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে বিশেষ সহায়ক হতে পারে।

দ্রুত দেখে নাও : মাধ্যমিক ভূগোল প্রশ্ন 2024

আরও দেখো: নমঃশূদ্র আন্দোলন

Comments 2

Welcome Visitor

Rlearn Education
error: Content is protected !!