ভারতের পূর্ব ও পশ্চিম উপকূলের সমভূমির মধ্যে পার্থক্য | মাধ্যমিক ভূগোল

পূর্ব ও পশ্চিম উপকূলের সমভূমির মধ্যে পার্থক্য : Madhyamik Geography |

A. অবস্থান :

✶ পূর্ব উপকূলের সমভূমি উপদ্বীপীয় ভারতের উড়িষ্যা, অন্ধ্রপ্রদেশ ও তামিলনাড়ু উপকূল বরাবর অবস্থান করছে।
✶ পশ্চিম উপকূলীয় সমভূমি গুজরাট, মহারাষ্ট্র, গোয়া, কর্ণাটক, কেরালা এই উপকূলীয় সমভূমির অন্তর্গত।

B. বিস্তার :
✶ পূর্ব উপকূল উড়িষ্যার সুবর্ণরেখা নদী থেকে শুরু করে দক্ষিনে তামিলনাড়ু কন্যাকুমারী পর্যন্ত প্রায় 1500 কিমি পর্যন্ত বিস্তৃত।
✶ পশ্চিম উপকূলীয় সমভূমি গুজরাটের কচ্ছের রণ থেকে শুরু করে দক্ষিণে কন্যাকুমারী পর্যন্ত প্রায় 1600 কিমি বিস্তৃত।

C. প্রশস্ত :
✶ পূর্ব উপকূল পূর্ব-পশ্চিমে প্রায় 80-100 কিলোমিটার চওড়া।
✶ পশ্চিম উপকূলের সমভূমি প্রায় 50-65 কিমি প্রশস্ত বিশিষ্ট হয়।

D. প্রকৃতি :
✶ পূর্ব উপকূল একপ্রকার সঞ্চয় জনিত উত্থিত উপকূল।
✶ পশ্চিম উপকূল একপ্রকার চ্যুতি গঠিত নিমজ্জিত উপকূল।

E. ঢাল :
✶ পূর্ব উপকূলের সমভূমি মৃদু ঢালে সমুদ্রের দিকে নেমে গিয়েছে।
✶ পশ্চিম উপকূলের ঢাল অনেক টাই বেশি, এটি খাড়া ভাবে আরব সাগরের দিকে নেমে গেছে।

F. নদনদী :
✶ পূর্ব উপকূলের নদী গুলি অধিক দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট হওয়ায় মোহনা অঞ্চলে সঞ্চয় কার্যের ফলে বদ্বীপ গঠিত হয়।
✶ পশ্চিম উপকূলের নদী গুলি স্বল্প দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট ও খরস্রোতা প্রকৃতির। তাই এই নদী গুলিতে বদ্বীপ দেখা যায় না।

G. মৌসুমী বায়ুর প্রভাব :
✶ ভারতের পূর্ব উপকূলে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমী বায়ু ও প্রত্যাবর্তন কারী উত্তর – পূর্ব মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে বছরে দুবার বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে।
✶ পশ্চিম উপকূলে কেবলমাত্র দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে গ্রীষ্মকালে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে।

H. উচ্চতা :
✶ পূর্ব উপকূল সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে 200 মিটারের কম উচ্চতা বিশিষ্ট হয়ে থাকে।
✶ পশ্চিম উপকূল সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে প্রায় 150 থেকে 300 কিমি উচু হয়।

দ্রুত দেখে নাও : মাধ্যমিক ভূগোল মডেল প্রশ্নপত্র 2024

পূর্ব ও মধ্যভারতে লৌহ- ইস্পাত শিল্পের গড়ে ওঠার কারণ |

Comments 2

Welcome Visitor

Rlearn Education
error: Content is protected !!